এশিয়ার প্রাচীনতম বাংলা সংবাদপত্র প্রথম প্রকাশ ১৯৩০

প্রিন্ট রেজি নং- চ ৩২

১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
৮ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

দেশজুড়ে জুয়ায় নিঃস্ব হচ্ছে তরুণরা, ওয়েবসাইটের খুঁজে বিটিআরসি

Daily Jugabheri
প্রকাশিত ২০ ফেব্রুয়ারি, মঙ্গলবার, ২০২৪ ০০:৪৫:৪৯
দেশজুড়ে জুয়ায় নিঃস্ব হচ্ছে তরুণরা, ওয়েবসাইটের খুঁজে বিটিআরসি

 যুগভেরী ডেস্ক ::: ওয়েবসাইট ও অ্যাপের মাধ্যমে দেশজুড়ে চলছে জুয়ার কারবার। এতে নিঃস্ব হচ্ছেন তরুণ, যুবকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। এ পটভূমিতে জুয়ার বিভিন্ন ওয়েবসাইট ও অ্যাপের তথ্য জানতে চেয়ে জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। ডিসিদের পাঠানো তথ্যের ভিত্তিতে জুয়ার সাইট বন্ধে উদ্যোগ নেবে বিটিআরসি।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিটিআরসির কার্যালয়ে সোমবার টেলিযোগাযোগ খাতের সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় এ তথ্য জানান সামাজিক বিটিআরসির সিস্টেমস অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ খলিল-উর-রহমান।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উস্কানিমূলক লিঙ্ক অপসারণের বিষয়ে তিনি বলেন, ফেসবুকের সঙ্গে আমাদের সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রয়েছে। হ্যাকিংয়ের শিকার কিংবা পর্নোগ্রাফিতে জড়িত এমন প্রোফাইলের বিষয়ে তাদের জানালে সংস্থাটি দ্রুত ব্যবস্থা নেবে। তবে ‘কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ডের’ দোহাই দিয়ে তারা আমাদের সব অনুরোধ রাখে না।

গত অক্টোবরে মোবাইল ফোনে ডেটার প্যাকেজ নিয়ে নতুন নির্দেশিকা জারি করে বিটিআরসি। এর ফলে ডেটা প্যাকেজগুলোর দাম বাড়ে। এ প্রসঙ্গে বিটিআরসির স্পেকট্রাম বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মাদ মনিরুজ্জামান জুয়েল বলেন, যেসব প্যাকেজ বেশি ব্যবহৃত হয়, সেগুলোর দাম কমাতে অপারেটরদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল, তারা দাম কমিয়েছে। ব্যান্ডউইথের দামেও পরিবর্তন আসবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ডেটা প্যাকেজের দামের বিষয়টি পুনর্বিবেচনার পরিকল্পনা রয়েছে।

স্পেকট্রাম বরাদ্দ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যেসব অপারেটর স্পেকট্রাম (তরঙ্গ) চেয়েছে, তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। দেশের জন্য যেটা ভালো, সেটা করা হবে।

লিগ্যাল অ্যান্ড লাইসেন্সিং বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী মুস্তাফিজুর রহমান এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, টাওয়ারের সংখ্যা বাড়াতে না পারলে কলড্রপ বা কোয়ালিটি সার্ভিস ঠিক রাখা সম্ভব নয়। তবে টাওয়ার বসানো নিয়ে জটিলতা রয়েছে। এখন চাইলেই টাওয়ার বসানো যাচ্ছে না। তবে টাওয়ারের সংখ্যা বাড়াতে আমরা চেষ্টা করছি।

মতবিনিময় সভায় শুরুতে বিটিআরসির চেয়ারম্যান মো. মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, বিটিআরসির ভুলভ্রান্তি হতে পারে। তবে আমরা সবসময় দেশের মানুষের কথা মাথায় রেখে কাজ করি।

বিটিআরসির সচিব মো. নূরুল হাফিজের সঞ্চালনায় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন কমিশনার মুশফিক মান্নান চৌধুরী, শেখ রিয়াজ আহমেদ, আমিনুল হক, আশীষ কুমার কুণ্ডুসহ কমিশনের কর্মকর্তারা।

সংবাদটি ভালো লাগলে স্যোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন