এশিয়ার প্রাচীনতম বাংলা সংবাদপত্র প্রথম প্রকাশ ১৯৩০

প্রিন্ট রেজি নং- চ ৩২

২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
১৫ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

বাগেরহাটে ‘রাইস ট্রান্সপ্লান্টেশন’ মেশিনের প্রদর্শনী

Daily Jugabheri
প্রকাশিত ১৯ ফেব্রুয়ারি, সোমবার, ২০২৪ ০৩:১৭:৪৪
বাগেরহাটে ‘রাইস ট্রান্সপ্লান্টেশন’ মেশিনের প্রদর্শনী

যুগভেরী ডেস্ক ::: বাগেরহাটে কৃষি ক্ষেত্রে প্রযুক্তি সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ‘রাইস ট্রান্সপ্লান্টেশন’ (স্বয়ংক্রিয় ধান লাগানোর যন্ত্র) মেশিনের প্রদর্শনী করা হয়েছে।

বুধবার (৩১ জানুয়ারি) দুপুরে বাগেরহাট সদর উপজেলা কৃষি অফিসের আয়োজনে যাত্রাপুর ইউনিয়নের খলসি অর্জুনতলা বাদোখালী মাঠে এ আয়োজন করা হয়।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহা. খালিদ হোসেন ‘রাইস ট্রান্সপ্লান্টেশন’ প্রদর্শনী কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

এ সময় বাগেরহাটের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শংকর কুমার মজুমদার, সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তন্ময় দত্ত, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিজিয়া বেগম, যাত্রাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বেগ এমদাদুল হক বাচ্চু, কৃষি সহকারী কর্মকর্তাসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

মেশিনে ধান রোপণ দেখতে স্থানীয় অর্ধশতাধিক নারী-পুরুষ উপস্থিত হয়। পরে ‘রাইস ট্রান্সপ্লান্টেশন’ মেশিন দিয়ে স্থানীয় এক কৃষকের জমি রোপণ করে দেওয়া হয়।

উপ-পরিচালক শংকর কুমার মজুমদার বলেন, কৃষিতে প্রযুক্তি ব্যবহার বাড়াতে পারলে, সময় ও ব্যয় দুটোই কমবে। পাশাপাশি উৎপাদনও বাড়বে। ৫২ শতাংশ জমিতে ধান রোপণ একজন কৃষকের অন্তত ছয়জন শ্রমিক লাগে। যাতে ব্যয় হয় তিন হাজার টাকা। কিন্তু এই একই পরিমাণ জমি ‘রাইস ট্রান্সপ্লান্টেশন’ মেশিনের মাধ্যমে লাগাতে এক হাজার থেকে ১২শ টাকা লাগতে পারে। সেই সঙ্গে সময় লাগবে দুই ঘণ্টার কম। এসব কারণে কৃষিতে প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়ানো খুবই জরুরি।

সংবাদটি ভালো লাগলে স্যোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন