এশিয়ার প্রাচীনতম বাংলা সংবাদপত্র প্রথম প্রকাশ ১৯৩০

প্রিন্ট রেজি নং- চ ৩২

২৩শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
৮ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
১৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ নিখোঁজের একদিন পর ভেসে উঠল বৃদ্ধের লাশ

Daily Jugabheri
প্রকাশিত ০২ জুন, রবিবার, ২০২৪ ০৫:১৩:১৪
সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ নিখোঁজের একদিন পর ভেসে উঠল বৃদ্ধের লাশ

নিজস্ব সংবাদদাতা, শান্তিগঞ্জ
সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়নে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ মো. ইসহাক মিয়া’র (৬২) সন্ধান মিলেছে। শনিবার বিকাল ৩ টায় খাইহাওর বেদাকালী নামক খাড়ার পাশে তার লাশ ভেসে ওঠে। ইসহাক উপজেলার পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়নের দূর্বাকান্দা গ্রামের ছমির উদ্দিনের ছেলে।
পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো.ছাইদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, শনিবার সকাল থেকে নিহতের স্বজনরা নৌকা করে হাওরে নিখোঁজের সন্ধান করছিলেন। এ সময় দুর্ঘটনাস্থল খাই হাওরে বেদাখালী নামক স্থানের পাশে নিখোঁজ বৃদ্ধের লাশ ভাসতে দেখা যায়। পরে স্বজনরা লাশ উদ্ধার করে বাড়ি নিয়ে আসেন। এর আগে শুক্রবার সকাল ১০ টায় হাওরে প্রবল স্রোতের মধ্যে পড়ে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। এতে ইসহাক নিখোঁজ হন।
এসময় আহত অবস্থায় সুহেল মিয়া (৩০)কে উদ্ধার করা হয়। স্থানীরা চিকিৎসার জন্য তাকে সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন। নৌকায় থাকা আরও ২ জন সাঁতার কেটে পাড়ে উঠেন। জানা যায়, পাথারিয়া বাজারে যাওয়ার উদ্দেশ্যে একই গ্রামের ৪ জন নৌকা করে হাওর পাড়ি দিচ্ছিলেন।
বেদাখালী নামক স্থানে আসামাত্র খাড়ার পানির প্রবল স্রোতে নৌকা ডুবে যায়। ইসহাক মিয়া পানিতে পড়ে নিখোঁজ হয়ে যান। খবর পেয়ে শান্তিগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল দিনভর চেষ্টা চালিয়েও নিখোঁজ ইসহাক মিয়ার সন্ধান পায়নি। আজ শনিবার বিকাল ৩ টায় ঘটনাস্থলে লাশ ভেসে উঠতে দেখতে পেয়ে তাহার পরিবারের স্বজনরা লাশ উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যান। ঐদিন সন্ধ্যায় বিনা ময়না তদন্তে পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হয়েছে।
শান্তিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মোক্তাদির হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পরিবারের স্বজনদের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিনা ময়না তদন্তে লাশ দাফন করা হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে স্যোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন