এশিয়ার প্রাচীনতম বাংলা সংবাদপত্র প্রথম প্রকাশ ১৯৩০

প্রিন্ট রেজি নং- চ ৩২

২৩শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
৮ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
১৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

জমে ওঠেছে ঈদের বাজার

Daily Jugabheri
প্রকাশিত ৩১ মার্চ, রবিবার, ২০২৪ ০০:৫৪:৫৭
জমে ওঠেছে ঈদের বাজার

যুগভেরী ডেস্ক
পবিত্র রমজান মাস প্রায় শেষের দিকে। ঈদুল ফিতর সামনে রেখে ইতোমধ্যে সিলেট নগরীতে ছোট-বড় মার্কেটগুলোতে জমে উঠতে শুরু করেছে ঈদের কেনাকাটা। সাপ্তাহিক ছুটির দিনে কেনাকাটা বেড়েছে আরও কয়েকগুণ।
গত দুদিন সিলেটের বিভিন্ন মার্কেট ঘুরে অন্যদিনের তুলনায় ক্রেতাদের ভিড় বেশি দেখা গেছে। নিজের পছন্দের পোশাক কিনতে এক মার্কেট থেকে আরেক মার্কেটে ছুটে যাচ্ছেন ক্রেতারা।
এদিকে ক্রেতাদের সন্তুষ্ট করতে চেষ্টার কোনো কমতি রাখছেন না বিক্রেতারা।
সিলেটের হাসান মার্কেট, শুকরিয়া মার্কেট, ব্লু ওয়াটার, কাজী ম্যানশন, সিটি সেন্টার, শ্যামলী মার্কেট,আল-হামরা শপিং কমপ্লেক্স, মিলেনিয়াম টাওয়ার, ওয়েস্ট ওয়ার্ড সহ অনান্য শপিংমল ঘুরে দেখা যায়, মার্কেটের বিভিন্ন ফ্লোর ঘুরে নিজের ও পরিবারের জন্য ঈদের পোশাক কিনছেন অনেকে। বিভিন্ন দোকান ঘুরে ঘুরে যাছাই বাছাই করে পছন্দের পোশাক কিনছেন তারা। এছাড়া ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে মূল্য ছাড় দিচ্ছে সিলেটের অনেক বিপণি বিতান।
অনেককে আবার ঘণ্টা-ব্যাপী মার্কেট ঘুরে ক্লান্ত হতে দেখা গেছে। মার্কেটে থাকা বিভিন্ন বসার জায়গায় কিছু সময় বিশ্রাম নিয়ে আবারও পছন্দের কাপড় কিনতে ঘুরছেন মার্কেটের এক ফ্লোর থেকে অন্য ফ্লোরে।
সিলেটের সিটি সেন্টাওে পোশাক কিনতে আসা ফারজানা আক্তার বলেন, বাসার সবার জন্য কাপড় কিনতে বের হয়েছি। ছুটির দিন বলে এসেছি। তবে এখন পর্যন্ত নিজের জন্য কিছু কেনা হয়নি। তিন ঘণ্টা ধরে আছি মার্কেটে, পা ব্যথা করছে তাই একটু বিশ্রাম নিচ্ছি।
একই মার্কেটে ঈদের কাপড় কিনতে আসা হুমায়ুন রিফাত আহমদ বলেন, অফিস থাকায় সপ্তাহের অন্যান্য দিনে মার্কেটে আসতে পারি না। ছুটির দিন তাই কেনাকাটা করতে আসা। নিজের এবং পরিবারের জন্য অনেক কিছুই নিলাম।
সিলেটের কাকলী শপিং কমপ্লেক্সে ফয়সাল ফেব্রিক্সের মালিক ফয়সাল আহমেদ বলেন, গত কয়েক দিন বেচাকেনা তেমন ভালো যাচ্ছিলো না। তবে ছুটির দিন হওয়ায় বিক্রি বেশ ভালোই হচ্ছে। আশা করছি সামনে আরো বাড়বে।
এছাড়াও অন্যান্য ব্যবসায়ীরা বলছেন ক্রেতারা মার্কেটে আসছেন, ঘুরছেন, পছন্দমতো কাপড় কিনছেন। ঈদ উপলক্ষ্যে ক্রেতাদের যেন পছন্দ হয় এমন সব কাপড় দোকানে তুলেছি। যেহেতু ঈদের আরো বেশ কয়েকদিন বাকি তাই পণ্য কেনার থেকে দাম যাচাই আর ঘুরাঘুরিতেই বেশ মনোযোগী ক্রেতারা।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে স্যোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন