এশিয়ার প্রাচীনতম বাংলা সংবাদপত্র প্রথম প্রকাশ ১৯৩০

প্রিন্ট রেজি নং- চ ৩২

২৩শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
৮ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
১৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

মাতৃভাষা দিবসে জাতীয় গণমাধ্যম কমিশন সিলেটের শ্রদ্ধাঞ্জলি ও আলোচনা সভা

Daily Jugabheri
প্রকাশিত ২১ ফেব্রুয়ারি, বুধবার, ২০২৪ ২২:২৪:৪৭
মাতৃভাষা দিবসে জাতীয় গণমাধ্যম কমিশন সিলেটের শ্রদ্ধাঞ্জলি ও আলোচনা সভা

যুগভেরী ডেস্ক ::: ২১শে ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে সকল বীর শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সোসাইটি অব জাতীয় গণমাধ্যম কমিশন সিলেট বিভাগীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ।   বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকালে সিলেট নগরীর চৌহাট্টাস্থ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর পর মাতৃভাষা দিবসে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।  সোসাইটি অব জাতীয় গণমাধ্যম কমিশন সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ে সোসাইটির সভাপতি আব্দুল মুক্তাদিরের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শেখ জাবেদ আহমদ এমরান (জাবেদ এমরান) এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, আজ আমরা যে বাঙাল ভাষায় কথা বলছি এটা বীর ভাঙালি শহিদদের অবদান। তাদের আত্মত্যাগের কারণে আমরা একটা স্বাধীন দেশ, লাল সবুজের একটা পতাকা পেয়েছি, পেয়েছি নিজস্ব ভাষা। আজকের এই স্বাধীনতা দিবসে আত্মত্যাগকারী বীর সেনানীদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি। মাতৃভাষাকে প্রতিষ্ঠার জন্য বীর সেনারা যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করে তা বিশ্বব্যাপি অনন্য দৃষ্টান্ত হয়ে রয়েছে। আমাদের রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনের সূচনা সেই বায়ান্ন সালে শুরু হয়েছিলো। এই আন্দোলনই আমাদের জাতীয় ইতিহাসে প্রথম ধর্মনিরপেক্ষ, গণতান্ত্রিক ও স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস হিসেবে চিহ্নিত।

তারা আরো বলেন, রাষ্ট্রভাষা হিসাবে বাংলাভাষাকে প্রতিষ্ঠিত করার প্রয়োজনে আপোশহীন সংগ্রাম করেছেন আমাদের পূর্বসুরিরা। ১৯৫২ সালের এই দিনে বাংলাকে মাতৃভাষা করার দাবিতে পাকিস্তানি সরকারের ১৪৪ ধারা ভেঙ্গে মিছিল বের করে ছাত্ররা। বুকের তাজা রক্তে প্লাবিত হয় রাজপথ। আত্মহুত্তি দিতে হয় ভাষা শহীদ বরকত, সালাম, রফিক, সফিক, জব্বার প্রমুখদের। রক্তাক্ত সেই স্মৃতিময় দিনটিকে কেন্দ্র করে বিশ্বব্যাপি পালিত হয় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। রাষ্ট্রভাষা আন্দোলন শুধু আমাদের মাতৃভাষার মর্যাদাকে সুপ্রতিষ্ঠত করেনি বরং অমর একুশে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে জাতিসংঘের স্বীকৃতি লাভ করেছে। বিশ্ব মানচিত্রে বাংলাদেশের জন্য একটি বিরাট অর্জন। ভাষা দিবসে তারা বীর সেনানীদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানান এবং তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করা হয়।

শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন ও আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন এবং উপস্থিত ছিলেন সোসাইটির সহ-সভাপতি ইজাজুল হক এজাজ, সিনিয়র সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. আজিজুল হক, সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. মহিবুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মোশারফ হোসেন খাঁন, কোষাধ্যক্ষ শহিদ আহমদ খাঁন, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আকমল হোসেন সুমন, গণমাধ্যম বিষয়ক সম্পাদক মো. হাবিবুর রহমান ও সৈয়দ সাইফুল ইসলামা নাহেদ প্রমুখ।

সংবাদটি ভালো লাগলে স্যোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন