এশিয়ার প্রাচীনতম বাংলা সংবাদপত্র প্রথম প্রকাশ ১৯৩০

প্রিন্ট রেজি নং- চ ৩২

১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

দক্ষিণ ছাতকবাসীর দাবি জাউয়ায় নয়, উপজেলা হবে সিরাজগঞ্জে

Daily Jugabheri
প্রকাশিত ০৫ জুলাই, শুক্রবার, ২০২৪ ২০:০৪:৩৪
দক্ষিণ ছাতকবাসীর দাবি জাউয়ায় নয়, উপজেলা হবে সিরাজগঞ্জে

 যুগভেরী ডেস্ক ::: জাউয়াবাজার নয়, পুরো এলাকার নামেই উপজেলা চান দক্ষিণ ছাতকবাসী। আর এ উপজেলার কেন্দ্র হবে সিরাজগঞ্জে। শুক্রবার (৫ জুলাই) সিলেট নগরীর একটি অভিজাত হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান দক্ষিণ ছাতকবাসী। দক্ষিণ ছাতক উপজেলা বাস্তবায়ন পরিষদের ব্যানারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, দক্ষিণ ছাতকবাসীর দীর্ঘদিনের দাবিকে উপেক্ষা করে গত ২২ জুন সংসদে সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক ছাতক উপজেলাকে বিভক্ত করে জাউয়া বাজার উপজেলা নামে একটি নতুন উপজেলা স্থাপনের দাবি উত্থাপন করেন। তার এ প্রস্তাবে ছাতক উপজেলার দক্ষিণাঞ্চলের ৬টি ইউনিয়নের বাসিন্দাদের মধ্যে হতাশা ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সুনামগঞ্জ জেলাধীন ছাতক উপজেলার সর্ব দক্ষিণ প্রান্তের ৬টি ইউনিয়ন তথা দোলার বাজার, ছৈলা আফজালাবাদ, গোবিন্দগঞ্জ-সৈয়দেরগাঁও, দক্ষিণ খুরমা, সিংচাপইড় ও ভাতগাঁও ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত দক্ষিণ ছাতক জনপদ। এ জনপদের দক্ষিণ প্রান্ত থেকে ছাতক উপজেলা সদর প্রায় ৫৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এ অঞ্চলের দোলার বাজার, ছৈলা আফজালাবাদ ইউনিয়নের পূর্ব-দক্ষিণ পার্শে বিশ্বনাথ ও জগন্নাথপুর উপজেলা। এবং দক্ষিণ-পশ্চিম প্রান্তে ভাতগাঁও ও জাউয়া বাজার ইউনিয়নের সীমানা ঘেঁষা জগন্নাথপুর ও শান্তিগঞ্জ উপজেলা এবং সুনামগঞ্জ-জগন্নাথপুর সড়ক -যা জগন্নাথপুর উপজেলার সাথে সরাসরি যোগাযোগ ব্যবস্থা রয়েছে এবং তার পশ্চিমে জাউয়া বাজার ইউনিয়ন যা শান্তিগঞ্জ উপজেলার সীমানা ঘেঁষা থাকায় নিজ উপজেলার সাথে সামাজিক ও প্রশাসনিক কাঠামো রক্ষা কঠিনতর হয়ে পড়েছে। এ কারণে ছাতক উপজেলার দক্ষিণাঞ্চলের জনগণ ১৯৫৬ সাল থেকে দক্ষিণ ছাতক নামে একটি স্বতন্ত্র প্রশাসনিক থানা ও পরবর্তীতে প্রশাসনিক উপজেলা স্থাপনের জন্য আন্দোলন ও সংগ্রাম করে আসছেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কের দক্ষিণাঞ্চল নিয়ে গঠিত ‘দক্ষিণ ছাতক উপজেলা’ নামে স্বতন্ত্র উপজেলা গঠনের দাবিতে দক্ষিণ ছাতক উপজেলা বাস্তবায়ন পরিষদ এবং যুক্তরাজ্যে দক্ষিণ ছাতক উপজেলা বাস্তবায়ন পরিষদ ইউকে গঠন করা হয়েছে। দীর্ঘদিন যাবৎ এ দুটি সংগঠন দেশে এবং বিদেশে একটি পূর্ণাঙ্গ স্বতন্ত্র উপজেলা বাস্তবায়নে প্রাণপণ চেষ্টা ও শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করে আসছে। আমদের এই বৃহৎ অঞ্চলে প্রায় দুই লক্ষ মানুষের বসবাস। এই ৬টি ইউনিয়নের জনগণের আনুষ্ঠানিক মতামতের ভিত্তিতে সর্বসম্মতভাবে মধ্যবর্তী ও সুবিধাজনক মনে করে সিরাজগঞ্জ বাজার সংলগ্ন ভটের খাল নদীর দক্ষিণ পার্শ্বের স্থানকে প্রস্তাবিত দক্ষিণ ছাতক উপজেলার প্রশাসনিক সদর দপ্তর স্থাপনের স্থান নির্ধারিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সিরাজগঞ্জ বাজারটি এ অঞ্চলের কেন্দ্রবিন্দুতে অবস্থিত হওয়ায় সমগ্র দক্ষিণ ছাতকের সঙ্গে এর যোগাযোগ ব্যবস্থা খুবই ভাল। নদী পথ, সড়ক পথে যোগাযোগ ব্যবস্থা সুবিধাজনক থাকায় বিভিন্ন ছোট বড় শিল্প কারখানা গড়ে উঠার সম্ভাবনা রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, দক্ষিণ ছাতকবাসীর প্রাণের দাবি দক্ষিণ ছাতক উপজেলা বাস্তবায়নের জোর দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে দক্ষিণ ছাতক উপজেলা বাস্তাবায়ন পরিষদের সভাপতি আ.ন.ম ওহিদ কনা মিয়ার পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পরিষদের সাবেক সদস্য সচিব অধ্যাপক মো. খসরুজ্জামান।

উপস্থিত ছিলেন- যুক্তরাজ্যে দক্ষিণ ছাতক উপজেলা বাস্তাবায়ন পরিষদের সভাপতি জামাল উদ্দিন মখদ্দুছ, দক্ষিণ ছাতক উপজেলা বাস্তবায়ন পরিষদের সহসভাপতি আব্দুল হান্নান, আজমান আলী, দবিরুল ইসলাম দবির, সিংছাপইড় ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মোর্শেদ চৌধুরী, এটিএম তারেক, শফিক আহমদ, তোফায়েল আহমদ, পিয়ার আলী, ছাদিকুর রহমান ছদিক, আব্দুল মতিন, এখলাছুর রহমান, উবায়দুল হক শাহীন, সহকারী অধ্যাপক ছালেহ আহমদ, সৈয়দ মনসুর আলী, আবু শামীম, উছমান আলী, শায়েস্তা মিয়া, আতিকুর রহমান, আবু জাবের প্রমুখ।

সংবাদটি ভালো লাগলে স্যোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন