এশিয়ার প্রাচীনতম বাংলা সংবাদপত্র প্রথম প্রকাশ ১৯৩০

প্রিন্ট রেজি নং- চ ৩২

১২ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
৬ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

ব্রিটেনের নির্বাচনে একই আসনে লড়ছেন প্রাক্তন স্বামী-স্ত্রী

Daily Jugabheri
প্রকাশিত ০৪ জুলাই, বৃহস্পতিবার, ২০২৪ ১২:৫১:৪৩
ব্রিটেনের নির্বাচনে একই আসনে লড়ছেন প্রাক্তন স্বামী-স্ত্রী

যুগভেরী ডেস্ক ::: আগামী ৪ জুলাই যুক্তরাজ্যের জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এ নির্বাচনে এমপি পদে একটি আসনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত দুইজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। লেবার পার্টি থেকে প্রার্থী হয়েছেন আফসানা বেগম। তার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী এহতেশামুল হক। তাদের দুজনেরই বাড়ি সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায়। তারা সাবেক স্বামী-স্ত্রী ছিলেন। অন্য আরেকটি আসন থেকে জগন্নাথপুরের আরেক সন্তান লেবার পাটি থেকে নির্বাচনে লড়ছেন।

যুক্তরাজ্য বসবাসরত কয়েকজন জগন্নাথপুরের বাসিন্দা জানান, যুক্তরাজ্যে আসন্ন সাধারণ নির্বাচনে আটজন ব্রিটিশ বাংলাদেশি লেবার পার্টি থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন। এরমধ্যে জগন্নাথপুর উপজেলার দুইজন। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জগন্নাথপুরেরও আরেকজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকা হিসেবে পরিচিত পূর্ব লন্ডনের পপলার অ্যান্ড লাইমহাউস আসনে লেবার পার্টি থেকে এমপি প্রার্থী হয়েছেন আপসানা বেগম। তাঁর বাবা জগন্নাথপুর পৌরসভার এনাতনগরের মৃত মনির উদ্দিন আহমদ। তিনি টাওয়ার হ্যামলেটসের মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনিও লেবার পাটির সদস্য ছিলেন।আফসানা বেগম জগন্নাথপুরের মেয়ে হলেও তার জন্ম ও বেড়ে ওঠা যুক্তরাজ্যেই। সেখানেই তিনি পড়াশোনা সম্পন্ন করে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের পাশাপাশি রাজনীতিতে সক্রিয়ভাবে সম্পৃক্ত রয়েছেন।

২০১৯ সালে যুক্তরাজ্যের জাতীয় নির্বাচনে লেবার পাটি থেকে পপলার অ্যান্ড লাইমহাউস আসন থেকে প্রথমবারের মতো বিপুল ভোটে আফসানা বেগম এমপি নির্বাচিত হন। এবারও তিনি একই দল থেকে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। এ আসনে এবার আফসানার সঙ্গে তাঁর সাবেক স্বামী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সাবেক কাউন্সিলর এহতেশামুল হক লড়ছেন। তিনিও জগন্নাথপুর পৌরসভার ইনাতনগের ছেলে। ২০১৩ সালে লন্ডনে তাঁদের বিয়ে হয়েছিল। বিয়ের দুই বছরের মাথায় তাঁদের বিচ্ছেদ ঘটে। এ আসনে আরও আটজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এদিকে, লন্ডনের গর্ডন ও বুকান আসন থেকে লেবার পার্টি থেকে জগন্নাথপুর উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের শাহারপাড়া গ্রামের বাসিন্দা নুরুল হক আলী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তিনি যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত থেকে দীর্ঘদিন যাবৎ কল্যাণমূলক কাজ করে আসছেন। তিনি কয়েকবার যুক্তরাজ্যে কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

যুক্তরাজ্যে বসবাসরত জগন্নাথপুরের বাসিন্দা সাংবাদিক শাহেদ রহমান জানান, এবারের ব্রিটিশ পার্লামেন্ট নির্বাচনে এমপি পদে জগন্নাথপুরের তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। নির্বাচনকে ঘিরে বাংলাদেশি কমিউনিটির মধ্যে উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। প্রচারও জমেছে।তিনি জানালেন, বাংলাদেশি অধ্যুষিত অঞ্চল হিসেবে খ্যাত পূর্বে লন্ডনের পপলার অ্যান্ড লাইমহাউস আসনে এবার আমাদের জগন্নাথপুরের একই এলাকার দুজন মুখোমুখি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। পছন্দের প্রার্থীদের পক্ষে সমর্থকরা ভোট প্রার্থনায় ব্যাপক প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন। লন্ডনের অন্য একটি আসনে জগন্নাথপুর উপজেলার আরেক কৃতি সন্তান ভোটে লড়ছেন।

যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক বলেন, এবারের যুক্তরাজ্যের জাতীয় নির্বাচনে বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত ৩৪ জন এমপি পদে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। এরমধ্যে জগন্নাথপুর উপজেলার তিনজন আছেন প্রতিদ্বন্দ্বিতায়। নির্বাচন কেন্দ্রে করে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে বাঙালিদের মধ্যে।

সংবাদটি ভালো লাগলে স্যোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন