:: 21-1-2021  
menu
(পরীক্ষামূলক সম্প্রচার)

হবিগঞ্জে শারদীয় পুনর্মিলনী

নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জ সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে শারদীয় পুনর্মিলনী শুক্রবার সকাল ১১টায় শ্রী শ্রী মহাদেব ও শ্রী শ্রী শনি মন্দিরে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন হবিগঞ্জ-৩ (সদর, লাখাই ও শায়েস্তাগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য এবং জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট মোঃ আবু জাহির।

News image

হবিগঞ্জ সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শংকর অধিকারীর সভাপতিত্বে ও সহ প্রচার সম্পাদক সমিরন কিশোর দাশের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন পূজা উদযাপন পরিষদ জাতীয় পরিষদ সদস্য অ্যাডভোকেট নলিনী কান্ত রায় নিরু, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অনুপ কুমার দেব মনা, সাংগঠনিক সম্পাদক অশোক কুমার মঙ্গল প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাগত বক্তৃতা করেন সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক স্বজল চন্দ্র দাশ। গীতা পাঠ করেন অনিক চন্দ্র পাল।

এছাড়াও সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদ, ইউনিয়ন এবং ৪৯টি পূজা মন্ডপ কমিটির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

ধর্মীয় সকল অনুষ্ঠানে সহযোগিতা করায় অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি এমপি আবু জাহিরকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। পরে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় ভাব-গাম্ভীর্য্য এবং সুষ্ঠুভাবে দুর্গাপূজা সম্পন্ন করায় লুকড়া যুগল রায়ের বাড়ি দুর্গা মন্ডপ, আহম্মদপুর দুর্গাপূজা মন্ডপ এবং গঙ্গানগর জননী সংসদ দুর্গাপূজা মন্ডপ কমিটির হাতে পূজা উদযাপনপ পরিষদের পক্ষ থেকে পুরস্কার তুলে দেন সংসদ সদস্য।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এমপি আবু জাহির বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দুস্কৃতিকারীরা শক্তি পায় না। সা¤প্রদায়িক শক্তি মাথাছাড়া দিয়ে উঠতে পারে না। সকল ধর্মের লোকজন নিজ নিজ ধর্মীয় কর্মকান্ড মনের আনন্দে পালন করতে পারেন। বিএনপি-জামায়াত দেশে সা¤প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টি করে জনগণের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছিল। তাদের জঙ্গিবাদ, আর দুর্নীতি-সন্ত্রাসের কারণে বিঘিœত হয়েছিল উন্নয়ন কাজ। কিন্তু ২০০৮ সাল থেকে বিগত ১০ বছর ধরে বর্তমান সরকার সারাদেশে সা¤প্রদায়িক স¤প্রীতি সৃষ্টি করেছে। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল মানুষের পাশে থেকে কাজ করছে এই সরকার। উন্নয়ন কাজ তরান্বিত হয়েছে। এই সকল উন্নয়নের কৃতিত্ব হচ্ছে জনগণের। কারণ দেশের জনগণ যদি নৌকায় ভোট না দিত তাহলে জাতির পিতার কন্যা সরকার গঠন করতে পারতেন না। হতো না অভাবনীয় সকল উন্নয়ন।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সকল ধর্মের মানুষকে সাথে নিয়ে বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছিল। এখন আওয়ামী লীগের মাধ্যমেই সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ নিজেদের প্রাপ্য অধিকার ফিরে পেয়েছেন। বাংলাদেশ উন্নীত হয়েছে উন্নয়নের মহাসড়কে। জাতির পিতাকে হত্যা করে দেশকে ধ্বংস করতে চেয়েছিল দুস্কৃতিকারীরা। তারপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ১৯ বার হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে; যাতে বাংলাদেশ উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যেতে না পারে।

এ সময় হবিগঞ্জে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ডের কথা তুলে ধরে আগামী নির্বাচনেও নৌকা প্রতীকের পক্ষে কাজ করতে পূজা উদযাপন পরিষদ নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানান এমপি আবু জাহির। এ সময় উপস্থিত সদর উপজেলার ৪৯টি পূজা মন্ডপের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ উপস্থিত নেতৃবৃন্দ হাত তুলে তার বক্তব্যের প্রতি সমর্থন জানান এবং সা¤প্রদায়িক স¤প্রতি অটুট রাখার লক্ষ্যে আগামী নির্বাচনে নৌকার পক্ষে কাজ করার প্রতিশ্র“তি ব্যক্ত করেন।