:: 25-9-2020  
menu
(পরীক্ষামূলক সম্প্রচার)

জিম্বাবুয়ের কাছে বাংলাদেশের লজ্জার হার

ন্যাশনাল ডেস্ক সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুই টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টে বাংলাদেশ হেরেছে ১৫১ রানের বড় ব্যবধানে। টেস্ট ভেন্যু হিসেবে এ স্টেডিয়ামের যাত্রা শুরু হয় বাংলাদেশ বনাম জিম্বাবুয়ের ম্যাচের মধ্যদিয়ে। কিন্তু দেশের অষ্টম টেস্ট ভেন্যুর অভিষেকটা রাঙানো তো দূরে থাক দুর্বল জিম্বাবুয়ের সঙ্গে ঠিকমতো লড়াইও করতে পারলো না মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নেতৃত্বে দলটি।

News image

বাংলাদেশ তাদের প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৪৩ রানে অলআউট হয়ে যায়। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে তারা করতে পারে ১৬৯ রান। এ নিয়ে টেস্টের সর্বশেষ আট ইনিংসে ২০০ রান করতে পারেনি বাংলাদেশ। টেস্টের চিরচেনা সেই ব্যাটিং ব্যর্থতার কারণে ঘরের মাঠে নিজেদের তৈরি করা স্পিন ফাঁদে পা দিয়ে আটকে গেলো বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজে সাকিব-তামিমের অভাব দেখা না দিলেও টেস্ট এসে অভিজ্ঞতায় টান পড়লো। দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান এবং সাকিবের বাঁ-হাতের ঘূর্ণি মিস করলো বাংলাদেশ।

জিম্বাবুয়ে তাদের প্রথম ইনিংসে ২৮২ রানের ভালো সংগ্রহ পায়। ওই ইনিংসে শেন উইলিয়ামস করেন ৮৮ রান। পিটার মুরের ৬৩ এবং অধিনায়ক মাসাকাদজার ৫২ রানে ভালো সংগ্রহ পায় সফরকারীরা।

বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস ১৪৩ রানে থাকলে ১৩৯ রানের লিড পায় তারা। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে জিম্বাবুয়ে করে ১৮১ রান। দুই ইনিংস মিলিয়ে লিড পায় ৩২১ রানের। ওই রান তুলতে বাংলাদেশের হাতে ছিল দুই দিন। কিন্তু বাংলাদেশ চতুর্থ দিনের দুটি সেশনই পার করতে পারলো না। মাঠ ছাড়লো ১৫১ রানে হেরে।

বাংলাদেশ দলের হয়ে দুই ইনিংসে মিলিয়ে সর্বোচ্চ রান অভিষেক হওয়া আরিফুল হকের। প্রথম ইনিংসে ৪১ রানের পর দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি করেন ৩৮ রান। বাংলাদেশের ইনিংসে নেই কোন অর্ধশতক। এই টেস্টে বাংলাদেশের একমাত্র পাওয়া সম্ভবত টেস্টে তাইজুলের প্রথম ১০ উইকেট পাওয়া। দুই ইনিংসে তিনি নিয়েছেন ১১ উইকেট। জিম্বাবুয়ের হয়ে দুই ইনিংসে ৬ উইকেট নিয়েছেন সিকান্দার রাজা।

আগামী ১১ নভেম্বর ঢাকায় সিরেজের দ্বিতীয় টেস্ট শুরু হবে।