:: 28-9-2020  
menu
(পরীক্ষামূলক সম্প্রচার)

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনে ভোট শুরু

ন্যাশনাল ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনে দেশজুড়ে ভোট দিতে শুরু করেছে মার্কিনিরা। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রেসিডেন্সি প্রশ্নে গণভোট হিসাবেই দেখা হচ্ছে এ ভোটকে। ইস্ট কোস্টের অঙ্গরাজ্যগুলোতে মঙ্গলবার প্রথম ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। সর্ব প্রথম নিউ হ্যাম্পশায়ার, নিউ জার্সি, নিউ ইয়র্ক, ভার্জিনিয়া এবং মাইনের ভোটাররা ভোট দিয়েছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি। এ ভোটে দেশটির কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস এর সব কয়টি, অর্থাৎ ৪৩৫টি আসনের প্রতিনিধি নির্বাচিত হবেন।

News image

এছাড়া, উচ্চকক্ষ সিনেটের ১শ’টি আসনের মধ্যে এদিন ভোট হবে ৩৫টিতে। পাশাপাশি ৫০টি অঙ্গরাজ্যের মধ্যে ৩৬টির গভর্নর নির্বাচন করবেন ভোটাররা।

ইস্টার্ন টাইম (ইটি) সন্ধ্যা ৬টায় সর্বপ্রথম ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যের বেশিরভাগ অংশ এবং কেন্টাকির পূর্ব ভাগের ভোট গ্রহণ শেষ হবে। এরও সাত ঘণ্টা পর সর্বশেষ আলাস্কায় ভোট গ্রহণ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

রাত ১০ টায় অ্যারিজোনা, কলোরাডো, উটাহ, মনটানা, নেভাডা, নর্থ ডেকোটা, অরেগনে ভোট শেষ হবে। রাত ১১টায় ক্যালিফোর্নিয়া,আইওয়া,অরেগন,ওয়াশিংটন এবং রাত ১২টায় আলাস্কা ও হাওয়াইয়ে ভোট শেষের কথা রয়েছে। আর বুধবার ইস্টার্ন টাইম ১টায় শেষ হবে আলাস্কার বাকি অংশের ভোট।

বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে বিভিন্ন সময় ভোট গ্রহণ শেষ হওয়ায় পূর্ণ ফল হাতে পেতে সময় লাগবে। রাত ১১টা থেকে ভোটের ফল আসতে শুরু করবে বলে জানায় দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস।

সাধারণত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের চাইতে মধ্যবর্তী নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি কম থাকে। তবে এবার ভোটার উপস্থিতি তুলনামূলক বেশি হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এরই মধ্যে আগাম ভোট দিয়েছে ৩ কোটির বেশি ভোটার। নির্বাচনের দিন ভোটার সংখ্যা আরো বেশি হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে পূর্বাঞ্চলীয় উপকূল এলাকায় ঝড়বৃষ্টি এবং মিডওয়েস্টে তুষাড়ঝড়ের পূর্বাভাস থাকায় সেখানে ভোটার সংখ্যা কমও হতে পারে।

মধ্যবর্তী এ  নির্বাচন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের জন্য বড় পরীক্ষা।কারণ, সর্বশেষ জনমত জরিপগুলোতে কংগ্রেসের উভয় কক্ষে বিরোধী ডেমক্র্যাদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভের আভাস পাওয়া গেছে।

যদিও নির্বাচনী প্রচারে ট্রাম্প বলেছেন, “ডেমক্রেটরা ক্ষমতায় আসলে দেশের অর্থনীতি ধ্বংস হয়ে যাবে এবং অবৈধ অভিবাসীরা অবাধে প্রবেশের সুযোগ পাবে”।

ভোটের আগে ওহাইও, ইন্ডিয়ানা এবং মিসৌরিতে সর্বশেষ তিন সমাবেশেই ট্রাম্প বলেন, “আমরা যা কিছু অর্জন করেছি তার সবই এখন ঝুঁকিতে।”